Home / স্বাস্থ্য-সেবা / ঘরোয়া উপায়ে ভেষজ গ্যাস্ট্রিকের দাওয়াই!

ঘরোয়া উপায়ে ভেষজ গ্যাস্ট্রিকের দাওয়াই!

যে সাত কারণে রোজ সকালে লেবুর পানি খাবেন

অনেকেই গ্যাস্ট্রিকের সমস্যায় ভোগেন। ঘরোয়া উপায়ে এটা নিরাময় করা সম্ভব। কী করে—তার উপায় জানালেন তিব্বিয়া হাবিবিয়া কলেজ ও হাসপাতালের অধ্যক্ষ হাকিম ফেরদৌস ওয়াহিদ।

* লং : দুটি লং মুখে নিয়ে চিবোতে থাকুন, যেন রসটা পেটে চলে যায়।

* জিরা : এক চা চামচ জিরা ভেজে নিন। এবার এমনভাবে গুঁড়া করুন যেন পাউডার না হয়ে যায়, একটু ভাঙা ভাঙা থাকে। ওই গুঁড়াটি এক গ্লাস পানিতে মিশিয়ে প্রতিবার খাবারের আগে পান করে নিন।

* আখের গুড় : আখের গুড় বুক জ্বালাপোড়া ও এসিডিটি থেকে মুক্তি দিতে পারে। যখন বুক জ্বালাপোড়া করবে, সঙ্গে সঙ্গে এক টুকরো গুড় মুখে দিয়ে রাখুন, যতক্ষণ না সর্ম্পূণ গলে যায়। তবে ডায়াবেটিক রোগীদের ক্ষেত্রে এটা ঠিক হবে না।

* মাঠা : মাঠা এসিডিটি দূর করতে টনিকের মতো কাজ করবে। তবে এর সঙ্গে সামান্য গোলমরিচ গুঁড়া মিশিয়ে নিতে হবে।

* পুদিনাপাতা : প্রতিদিন পুদিনাপাতার রস বা পাতা চিবিয়ে খেলে এসিডিটি ও বদহজম হবে না।

* তুলসীপাতা : এসিডিটির সমস্যা হলে ৫ থেকে ৬টি তুলসীপাতা চিবিয়ে খেলে কমে যাবে। এ ছাড়া তুলসীপাতা প্রতিদিন বেটে পানিতে মিশিয়ে খেলে এসিডিটি হওয়ার আশঙ্কা কমে যাবে।

* আদা : খাওয়ার আধা ঘণ্টা আগে ছোট এক টুকরো আদা খেলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থাকবে না।

* দুধ : রাতে এক গ্লাস দুধ ফ্রিজে রেখে দিয়ে পরদিন সকালে খালি পেটে ঠাণ্ডা দুধটুকু খেলে সারা দিন এসিডিটি থেকে মুক্ত থাকা যাবে। তবে কারো কারো ক্ষেত্রে দুধ অতিসংবেদনশীল, তাদের দুধ খেলে সমস্যা আরো বাড়তে পারে। এ ক্ষেত্রে এক দিন খেয়ে দেখতে হবে, কোনো অসুবিধা হয় কি না।

* লেবু : মাঝারি আকৃতির একটি লেবুু চিপে রস বের করে নিন। এরপর লেবুর রসের সঙ্গে আধা টেবিল চামচ বেকিং সোডা এক কাপ পানিতে মিশিয়ে পান করুন। বেকিং সোডা ভালো করে মিশে যাওয়া পর্যন্ত নাড়ুন। এবার মিশ্রণটি খেয়ে নিন। নিয়মিত খেলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যায় আরাম পাওয়া যাবে।

* চা : বিভিন্ন রকম হারবাল চা আছে, যেমন সবুজ চা, পুদিনা ও তুলসী। এসব চা হজমক্ষমতা বাড়ায় এবং গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা সমাধান করে।

* তেঁতুলপাতা : এক মুঠি তেঁতুলপাতা মিহি করে বেটে এক গ্লাস দুধের সঙ্গে মিশিয়ে প্রতিদিন পান করুন। গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা পুরোপুরি দূর হয়ে যাবে।

* ডাবের পানি : ডাবের পানি খেলে হজমক্ষমতা বাড়ে এবং সব খাবারই সহজে হজম হয়। এ ছাড়া গ্যাসের সমস্যা থাকলেও মুক্তি পাওয়া যায়। প্রতিদিন ডাবের পানি পানের অভ্যাস করুন। গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থাকবে না।

* আলুর রস : আলু বেটে কিংবা ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে রস বের করে নিন। এবার ওই রস প্রতিবার খাওয়ার আগে খেয়ে নিন। এভাবে তিন বেলা খাওয়ার আগে আলুর রস খেলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা আস্তে আস্তে কেটে যাবে।

খালি পেটে চা নয়

About Abul Fazal Azad

Check Also

522

শরীরে সূর্যের আলো না পেলে এই ভয়ঙ্কর রোগ হতে পারে আপনার!

ঘরোয়া উপায়ে ভেষজ গ্যাস্ট্রিকের দাওয়াই! বাড়ি, স্কুল আর অফিস। দিনের বেশিরভাগ সময় কাটছে চার দেওয়ালের …

341

যে সাত কারণে রোজ সকালে লেবুর পানি খাবেন

খালি পেটে চা নয় সব ধরণের চিকিৎসা শাস্ত্রে প্রতিদিন সকালে নিয়ম করে লেবুর পানি খাওয়ার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *